বাংলাদেশকে অতিরিক্ত ১ কোটি ২৯ লাখ ডলার সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে অতিরিক্ত ১ কোটি ২৯ লাখ ডলার সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন দাতব্য সংস্থা ইউএসএআইডির মাধ্যমে সহায়তার ওই অর্থ পাবে বাংলাদেশ।

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার রোববার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে এ তথ্য জানান। বলেন, করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য এ সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

বিকেলে রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে ইউএসএআইডি প্রকাশিত ‘সোনার বাংলার সুবর্ণজয়ন্তী’ শীর্ষক আলোকচিত্র সম্বলিত একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করছিলেন রাষ্ট্রদূত।

ফটোগ্রাফি-বুক বা ছবিনির্ভর ওই বিশেষ বইয়ে স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন ও সাফল্যের পথপরিক্রমা এবং ইউএসএআইডির সহায়তার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। প্রকাশনাটির বিষয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, গত পাঁচ দশকে বাংলাদেশকে ইউএসএআইডির মাধ্যমে ৫০০ কোটি ডলার সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বাংলাদেশের আজকের অবস্থানে শক্তিশালী স্থায়ী অংশীদারত্বে ইউএসএআইডি তথা যুক্তরাষ্ট্র যে অবদান রেখেছে, বইটিতে তার অনেকটাই তুলে ধরা হয়েছে।করোনাকালে বাংলাদেশকে প্রদেয় টিকার বিষয়ে মার্কিন দূত বলেন,

আপনারা এরইমধ্যে জেনেছেন কোভ্যাক্সের মাধ্যমে বাংলাদেশকে মর্ডানার ২৫ লাখ ডোজ টিকা দিচ্ছে বাইডেন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। শিগগির ওই টিকা ঢাকা পৌঁছাবে। এটি কোভ্যাক্সকে দেয়া যুক্তরাষ্ট্র সরকার প্রতিশ্রুত আট কোটি ডোজ করোনা টিকার অংশ। যুক্তরাষ্ট্র এরইমধ্যে কোভ্যাক্সকে প্রতিশ্রুত ৪০০ কোটি ডলারের অর্ধেকটা পরিশোধ করেছে।

এটি কোভ্যাক্সে এককভাবে দেয়া কোনো দেশের সর্বোচ্চ সহযোগিতা। মরণ ব্যাধি করোনা মোকাবিলায় বৈশ্বিক সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত বলেন, করোনা আমাদের শিখিয়েছে, সুরক্ষার জন্য একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই।

করোনা আমাদের দেখিয়েছে মহামারি ও জলবায়ু পরিবর্তনের মতো সংকটে অভিন্ন অবস্থানে কাজ করতে হয়। কারণ, এসব কোনো সীমান্ত নেই। করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগগুলো সংকট মোকাবিলায় এরইমধ্যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বলেও মন্তব্য করেন মার্কিন দূত। অনুষ্ঠানে

ইউএসএআইডির ঢাকা মিশনের ডিরেক্টর ডেরিক এস ব্রাউন বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি সত্যিকারের সফলতার গল্প, যা জীবন পরিবর্তনকারী ও জীবন রক্ষাকারী সাফল্য অর্জন করেছে, এটি শুধু আমার কথা নয়। আমি আশা করি, ইউএসএআইডি প্রকাশিত এই বই বাংলাদেশ কেন, বিশ্বের কাছে দৃষ্টান্ত; সেটা আলোকচিত্রের মাধ্যমে বিস্তারিতভাবে তুলে ধরতে পেরেছে।

সুত্র: নয়া দিগন্ত