‘‘মিঃ প্রেসিডেন্ট! চড় খাওয়ার পর আপনি এখন কেমন আছেন?’ ম্যাক্রোকে এক শিশুর প্রশ্ন

    ‘মিঃ প্রেসিডেন্ট! নাগরিকের চড় খাবার পরে এখন কেমন আছেন?’- ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানোয়েল ম্যাক্রোকে এমন প্রশ্ন করে হতবাক ও বিব্রত করে দিয়েছে দেশটির একটি স্কুলের এক শিশু শিক্ষার্থী।

    ফরাসি সংবাদপত্র লে ফিগারো জানিয়েছে, ফরাসী প্রেসিডেন্ট একটি স্কুল পরিদর্শন করার সময় নিষ্পাপ ভঙ্গিতে এই প্রশ্ন করে ম্যাক্রোকে মানুষের সামনে বিব্রত করে দিয়েছে এক শিশু।
    প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,

    এক শিক্ষার্থী টেলিভিশন ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে আঙুল তুলে ম্যাক্রোকে জিজ্ঞেস করে বসে, ‘চড় খাওয়ার পর আপনি কি এখন ঠিক আছেন?’

    আন্তর্জাতিক সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়েছে, শিশুটির প্রশ্নের উত্তরে ম্যাক্রো মুচকি হেসে জবাব দেন যে তিনি ঠিক আছেন। এরপর ম্যাক্রো শিশুটিকে বলেন, এভাবে কাউকে থাপ্পড় দেওয়া ঠিক নয়, এটা ভালো কোন কাজ নয়, যে আমাকে থাপ্পড় দিয়েছে সে ভালো কাজ করেনি।

    তিনি শিশুটিকে আরো বোঝান, স্কুলে সহপাঠীদের সাথে মারামারি করাও ঠিক নয়।
    প্রসঙ্গত, জনগণের সঙ্গে সামনাসামনি আলাপ ও সৌহার্দ্য বিনিময় করতে গিয়ে মঙ্গলবার থাপ্পড় খেয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁ।

    ব্যারিকেডের কাছাকাছি যেতেই তার গালে সজোরে চড় মারেন এক যুবক। এ ঘটনা রীতিমতো ঝড় তুলেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে।

    ভিড়ের মধ্যে প্রকাশ্যে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে চড় মারা দামিয়ান তাহেলকে ১৮ মাসের কারাদণ্ড দেয় দেশটির একটি আদালত। তারমধ্যে ১৪ মাসের সাজা স্থগিত এবং চার মাসের সাজা এখনই ভোগ করতে হবে।

    তাহেল আদালতকে বলেছেন, হঠাৎ আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে তিনি ওই কাজ করে বসেছেন। কিন্তু প্রসিকিউটর বলেন, ওটা ‘ইচ্ছাকৃতভাবে ঘটানো নৃশংস’ কর্মকাণ্ড ছিল।
    আদালতের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, তাহেল ডানপন্থি অথবা চরম ডানপন্থি রাজনীতির নিয়মিত খোঁজ খবর রাখেন এবং ‘ইয়ালো ভেস্ট’ আন্দোলনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ।

    এ বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ বলেন, এই হামলাকে তুচ্ছ ঘটনা হিসেবে বিবেচনা করা উচিত হবে না। কিন্তু অতিরঞ্জিত না করে বরং একে সাধারণ ঘটনা হিসেবেই বিবেচনা করা উচিত। সূত্র: ইনডিপেনডেন্ট