উইঘুর নির্যাতন বন্ধ না হলে চীনা পণ্য বর্জনের ঘোষণা

চীনে উইঘুর মুসলমানদের ওপর নির্যাতন বন্ধ করা না হলে দেশটির পণ্য বর্জণের ঘোষণা দিয়েছে সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোট নামে একটি সংগঠন।

তাদের অভিযোগ, উইঘুর মুসলিমদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘ডোপা দিবস’ উপলক্ষে চীন সরকার মুসলিমদের ওপর বর্বর নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণসহ নানা কর্মকাণ্ড চালিয়েছে।

বুধবার (৫ মে) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলে সংগঠনটি।

সংগঠনটির মহাসচিব অ্যাডভোকেট খায়রুল আহসান বলেন, চীন সরকার সকল সংবাদকর্মী, অধিকার কর্মী, জাতিসংঘের কর্মকর্তা এমনকি সংবাদ সংগ্রহে আগ্রহী কাউকে উইঘুরে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

তারা পুরো পৃথিবীকে অন্ধকারে রাখতে সব ব্যবস্থাপনাই করে রেখেছে। তার পরেও কিছু কিছু সংবাদ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে যা দেখে পুরো বিশ্ব হতভম্ব।

বিশ্বের বিবেকবান মানুষ তা মেনে নিতে পারেনি। আমরা চীনের এহেন গর্হিত কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

সভায় নেজামে ইসলাম পার্টির চেয়ারম্যান ও সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় নেতা হারিসুল ইসলাম বলেন, চীনের কর্মকাণ্ড দেখার পরও মুসলিম বিশ্ব আজ চুপ করে আছে।

মুসলিম বিশ্ব আজ চাপ প্রয়োগ করলে এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করলে চীন হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন বন্ধ করতে বাধ্য হতো। আমরা চাই মুসলিম বিশ্ব জেগে উঠুক এবং সরকারগুলো এই নির্যাতনের প্রতিবাদ করুক।

তিনি আরও বলেন, চীনের সরকার যদি উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতন করা বন্ধ না করে তাহলে আমরা চীনের পণ্য বর্জনের ডাক দেব। আমরা চীনের তৈরি সব পণ্য বর্জন করব।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ হোসাইন আকন, মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসাইন, নাসির হোসেন প্রমুখ।