‘আল আকসা আমাদের ডাকছে, শহীদদের রক্ত আমাদের পুনরুজ্জীবিত করছে’

ফিলিস্তিনে অব্যাহত ইসারাইলি হামলার প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করতে কাতারের বিশেষ একটি অংশ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও টুইট যুদ্ধের প্রতিবাদ জানাচ্ছে এমন একটি পরিসংখ্যান উঠে এসেছে কাতারভিত্তিক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার রিপোর্টে।

আল-জাজিরার সংবাদ উপস্থাপক আয়মান আজম রবিবার তার টুইটরে বলেছেন, “পবিত্র মসজিদে ফিলিস্তিনিরা প্রবেশের জন্য ইসরাইলি বাধা ভেঙে দিয়েছে,” আল আকসা আমাদের ডাকছে .. শহীদদের রক্ত আমাদের পুনরুজ্জীবিত করছে .. ফিলিস্তিনিরা অবশ্যই ফিরে আসবে। ”

তার টুইট বার্তাগুলি আরবি হ্যাশট্যাগ [# القدس_تنتفض] বা কাতারের টুইটারস্পিয়ারে প্রবণতা হিসাবে প্রকাশিত হয়েছে, যেখানে অনেকে সহিংসতার অগ্নিসংযোগকে ভুলভাবে উপস্থাপনের জন্য বিদেশীদের প্রতি প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

https://twitter.com/AymanazzamAja?ref_src=twsrc%5Etfw%7Ctwcamp%5Etweetembed%7Ctwterm%5E1386493694132592643%7Ctwgr%5E%7Ctwcon%5Es1_&ref_url=https%3A%2F%2Fd-13489156162683111516.ampproject.net%2F2104170104001%2Fframe.html

প্রথমবারের মতো পূর্ণ লকডাউনে যাচ্ছে তুরস্ক

রাস্তায় মানুষের ভিড়, ক্রেতা সামলাতে ব্যস্ত বিপণিবিতানগুলো, আর সড়কে যানবাহনের চাপ। ইস্তাম্বুল ছাড়তে কেউ ছুটছেন প্রধান বাস টার্মিনালে। করোনার মহামারিকালে আজ বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো পূর্ণাঙ্গ লকডাউন দেওয়ার প্রাক্কালে তুরস্কের চিত্রটা ছিল এমন। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

ভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেড়ে যাওয়ায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তুরস্ক। আজ বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে আগামী ১৭ মে পর্যন্ত দেশটিতে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপগুলো এখন আলোচনায় ব্যস্ত লকডাউনের আসন্ন দিনগুলো কীভাবে যাবে, কেমন হবে জীবনযাপন।

গত বছর ঠিক এই সময়ে তুরস্ক বৈশ্বিক মহামারির সময় দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে সফল হয়েছিল এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দেশটির উদ্যোগের প্রশংসাও করেছিল।

তবে সেটি এখন অতীত। এক বছর পর এই মুহূর্তে তুরস্ক এখন করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর একটি। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে তুরস্কে করোনার সংক্রমণের হার সর্বাধিক।

কী কী নতুন বিধিনিষেধ থাকছে?

এক. আবশ্যকীয় কেনাকাটা এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরি পরিস্থিতি ছাড়া কেউ বাড়ির বাইরে যেতে পারবে না।

দুই. এক শহর থেকে অন্য শহরে যেতে হলে সংশ্লিষ্ট

তিন. স্কুল বন্ধ থাকবে। গণপরিবহণ চলবে, তবে আসন সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া থাকবে।

চার. অ্যালকোহল বিক্রি সীমিত থাকবে।

তবে কিছু কিছু ব্যবসার ক্ষেত্রে এসব নতুন বিধিনিষেধ প্রযোজ্য হবে না।

এদিকে, নতুন করে লকডাউন দেওয়ার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেক বিশেষজ্ঞ। তাঁরা বলছেন, এই লকডাউনের দরকার আছে।

তবে, লকডাউনের বিরোধিতাও করছেন কেউ কেউ। তাঁদের ভাষ্য, সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে এই লকডাউন বেশিদিন টিকবে না। আর তাঁদের যুক্তি- দ্রুততার সঙ্গে টিকাকরণ কার্যক্রম চালানো না গেলে এই লকডাউন খুব বেশি কাজে আসবে না।

এ ছাড়া লকডাউন বা এ ধরনের যেকোনো পদক্ষেপ নিলে স্বল্প-আয়ের মানুষের জন্য আর্থিক সহায়তার ব্যবস্থা থাকা উচিত বলে তাঁরা মনে করেন।

গুলি করে ইসরাইলের ড্রোন ভূপাতিত করল ফিলিস্তিনের হামাস

ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোল হামাসের সদস্যরা ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে। ড্রোনটি গাজা উপত্যকার একটি ভবনের ছাদের ওপর গিয়ে পড়েছে।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় বেইত হানুন শহরে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা ড্রোনটি উদ্ধার করে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সদর দপ্তরে পৌঁছে দেয়।

পবিত্র জেরুসালেম আল-কুদস শহরে ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলি বাহিনী এবং অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ইহুদিদের সঙ্গে ফিলিস্তিনি মুসলিমদের গত কয়েকদিন ধরে যখন দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে এবং পুরো ফিলিস্তিন জুড়ে ইসরাইল-বিরোধী উত্তেজনা বিরাজ করছে ঠিক তখন এই ড্রোন ভূপাতিত করার ঘটনা ঘটলো।

গত সোমবার ইসরাইলের কয়েকটি সূত্র জানিয়েছিল, গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইলকে লক্ষ্য করে একটি মর্টারের গোলা নিক্ষেপ করা হয়। এরপর গাজা থেকে ৪০টি রকেট ছোঁড়া হয়েছে। ফাতাহ আল-আকসা শহীদ ব্রিগেড এবং ফিলিস্তিনি মুক্তি আন্দোলনের আবু আলী ব্রিগেড এসব রকেট ছোঁড়ার দায়িত্ব স্বীকার করেছে।

এবার আফগানিস্তান থেকে দূতাবাস কর্মীদের সরিয়ে নিচ্ছে আমেরিকা

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তুতি নিচ্ছে আমেরিকা। এমন অবস্থায় সেখানে মার্কিন সেনাদের জন্য হুমকি বেড়ে যাচ্ছে। সে কারণে অতিরিক্ত দূতাবাস কর্মীদের অবিলম্বে কাবুল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে দেশটি।

আমেরিকার পররাষ্ট্র দফতর এক বিবৃতিতে এই নির্দেশনা দেয়।

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেয়ার ঘোষণার দুই সপ্তাহ পর যুক্তরাষ্ট্র নতুন এই ঘোষণা দিল।

এর আগে আমেরিকা এক ঘোষণায় জানিয়েছে, আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তারা তাদের সৈন্যদের আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করে নেবে। মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের এই প্রক্রিয়া শুরু হবে আগামী ১ মে থেকে। তবে ওইদিন শুধু মার্কিন বাহিনীই নয়, আফগানিস্তান থেকে বিদায় নিতে শুরু করবে ন্যাটো সেনারাও।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা কাবুল মার্কিন দূতাবাস থেকে মার্কিন সরকারের কর্মী যারা অন্যক্ষেত্রেও কাজ করতে পারবেন তাদের কাবুল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভারতে করোনা সংক্রমণের মধ্যেই বিজেপির নির্বাচনী র‍্যালি

ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যয়কর পরিস্থিতির মধ্যেও জনসমাবেশ করেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি)।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, বিজেপির নেতাকর্মীরা দক্ষিণ তেলেঙ্গানা রাজ্যের কয়েকটি অংশে পৌর নির্বাচনের আগে বিশাল র‍্যালির আয়োজন করেছে।

গত সোমবার টুইটারে বিজেপি তেলেঙ্গানার অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে প্রকাশিত কয়েকটি ছবিতে দেখা গেছে, গ্রেটার ওয়ারাঙ্গল পৌর করপোরেশনে একটি র‍্যালিতে ব্যাপক জনসমাগম ঘটেছে। তাদের মধ্যে অনেকেই মাস্ক পরেননি, সেখানে কোনো সামাজিক দূরত্বের নিয়মও মানা হয়নি।

পরে সমালোচনার মুখে বিজেপির ওই টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে র‍্যালির কয়েকটি ছবি সরিয়ে নেওয়া হয়।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে গত মার্চ থেকে এপ্রিলের মধ্যে কয়েক হাজার মানুষের উপস্থিতিতে বেশ কয়েকটি সমাবেশ করেছে বিজেপি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ কেন্দ্রীয় নেতারা নিয়মিত এসব সমাবেশে যোগ দেন।

গত ২২ এপ্রিল নির্বাচন কমিশন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে। নির্বাচন কমিশনের নতুন নোটিশে বলা হয়েছে, করোনার সংক্রমণের মধ্যে নির্বাচনী প্রচারণায় কোনও রোড শো বা পদযাত্রা করা যাবে না।

কোনও সাইকেল, বাইক কিংবা গাড়ি নিয়ে র‌্যালি করা যাবে না। তবে, কোনও একটি জায়গায় সর্বোচ্চ ৫০০ জনের উপস্থিতিতে জনসভা করা যাবে। সেক্ষেত্রে জায়গাটি সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার মতো উপযুক্ত হতে হবে এবং করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সুরক্ষা বিধি মেনে চলতে হবে।

তেলেঙ্গানা রাজ্যের নির্বাচন কমিশনও রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীদের করোনাভাইরাস সম্পর্কিত রাজ্যের নির্দেশিকাগুলো মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে। তেলেঙ্গানা রাজ্যে মহামারির বিরুদ্ধে তেমন কোনো কঠোর ব্যবস্থা কার্যকর করা হয়নি, কেবল রাত্রীকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে।

তেলেঙ্গানার স্বাস্থ্য বিভাগের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মঙ্গলবার তেলঙ্গানায় ১০ হাজার ১২২ জনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে রাজ্যটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ১১ হাজার ৯০৫ জন।

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, টিকাদানে ধীরগতি, জনসমাবেশ ও ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে ভারতে কোভিড -১৯ মহামারি নিয়ন্ত্রণের বাইরে ছড়িয়ে পড়েছে।

সিএনএন-এর তথ্যে, ভারতে এ পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৭৬ লাখ ৩৬ হাজার ৩০৭ জনের করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৯৭ লাখ ৮৯৪ জন।