বিশ্ববিখ্যাত আলেম শায়েখ মুহাম্মাদ আলী সাবুনী ইন্তেকাল করেছেন

    আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াতের বর্তমান সময়ের উজ্জ্বল নক্ষত্র, বিশ্ববিখ্যাত আলেম ও তাফসির বিশারদ শায়েখ মুহাম্মাদ আলী সাবুনী ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহী ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ছিল ৯১ বছর।

    আজ শুক্রবার (১৯ মার্চ) জুম’আর আগে তুরস্কের ইয়ালোভা জেলায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

    আগামীকাল শনিবার (২০ মার্চ) ইস্তাম্বুলের সুলতান মুহাম্মাদ ফাতেহ মসজিদ প্রাঙ্গণে বিশ্ববিখ্যাত এ আলেম এর জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

    শায়েখ ড. মুহাম্মাদ আলী সাবুনী মুসলিম বিশ্বের অন্যতম আলেম। তিনি আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াতের বর্তমান সময়ের উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন। জ্ঞান ও গুণের অপূর্ব সমন্বয় ঘটেছিল তাঁর মধ্যে। তাঁর শুভ্র মুখায়বে ফুটে ছিল দ্বীন ও ইলমের প্রতি গভীর ভালোবাসা। ইসলামী আইন ও তাফসির বিষয়ক তাঁর রচনাবলি বিশ্বব্যাপী ব্যাপকভাবে সমাদৃত।

    মুহাম্মাদ আলী সাবুনী ১৯৩০ সালে সিরিয়ার হালব শহরে জন্মগ্রহণ করেন। নিজ পিতা হালবের প্রখ্যাত আলেম শায়খ জামিল সাবুনির কাছে প্রাথমিক পাঠ সম্পন্ন করেন। পড়াশোনা করেছেন মিশরের জামেয়াতুল আজহারে। সিরিয়ান আওকাফ মিনিস্ট্রি তাকে নিজ খরচে আল আজহারে পাঠায়। ১৯৫২ সালে শরিয়াহ ফ্যাকাল্টি থেকে অনার্স সম্পন্ন করেন এবং ১৯৫৪ সালে ইসলামী বিচারব্যবস্থার উপর উচ্চতর ডিগ্রি নেন। ১৯৬২ সালে মিশরে উচ্চশিক্ষা শেষ করে হালবে উচ্চমাধ্যমিক স্তরের ইসলামী সংস্কৃতি বিষয়ে অধ্যাপনা শুরু করেন।

    সৌদি সরকারের আমন্ত্রণে মক্কা বিশ্ববিদ্যালয়ের (বর্তমান উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয় মক্কা) শরিয়াহ বিষয়ে অধ্যাপনা শুরু করেন। দীর্ঘ ২৮ বছর যাবত তিনি এখানে শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পাঠদানে তার বিশেষ আগ্রহ ছিল। তিনি মসজীদুল হারামে দৈনিক দারস দিতেন। জেদ্দার একটি মসজিদে টানা আট বছর সপ্তাহিক দারস দিয়েছেন। আর তাতে কুরআনুল কারীমের দুই তৃতীয়াংশ তাফসীর করেন। যা ক্যাসেটে রেকর্ড করা হয়েছিল। তিনি ৬০০টির মতো ইপিসেডে কুরআনের তাফসীর করেছিলেন। তিনি রাবেতাতুল আলাম আল ইসলামীর হাইআতুল ই’জাজ আল ইলমির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন।

    মরহুমের লিখিত বইয়ের মাঝে আছে সফওয়াতুত তাফাসীর (তাফসীরগ্রন্থ), ইসলামী শরিয়ায় মিরাস, রাওয়ায়েউল বায়ান (আহকাম সংক্রান্ত আয়াতের তাফসীর), কুরআনের নূর, তাফাক্কুহ ফিদ দ্বীন সিরিজ (সহজ ফিকহ বিশ্বকোষ), তাফসীরুল ওয়াদেহ আল মুয়াসসার (সহজ তাফসীর) ও আত তিবইয়ান ফি উলুমিল কোরআন (উলুমুল কুরআন বিষয়ক গ্রন্থ) অন্যতম।

    মুহাম্মাদ আলী সাবুনী ছিলেন সিরিয়ার সুন্নি মুসলিমদের গণহত্যার খলনায়ক বাশার আল আসাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সমর্থক। সিরিয়ান স্কলারস এসোসিয়েশনের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। সিরিয়াবাসীর দুঃখ-দুর্দশা লাঘবে সাধারণ জনগনের সহায়তায় নানা সময় হাত বাড়িয়েছেন তিনি। নিজ জন্মভূমি সিরিয়া অতঃপর সৌদি আরবে দীর্ঘকাল কাটিয়ে অবশেষে তুরস্কে বসবাস করছিলেন শায়েখ মুহাম্মাদ আলি সাবুনি।