হুঁশিয়ারি দিয়ে যা বললেন ইলিয়াস কাঞ্চন

জাতীয় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন অন্যান্য বারের মতো না হয়ে এবারের নির্বাচন ছিলো উত্তেজনায় ঠাঁসা। নানা নাটকীয়তা আর আলোচনা যেন হার মানিয়েছে দেশের জাতীয় নির্বাচনকে। হবেই না বা কেন, এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে অংশ নিয়েছিলেন দেশের কিংবদন্তি চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। ফলে নির্বাচনে ছিলো বাড়তি উত্তেজনা।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিকে নতুন করে ঢেলে সাঁজাতে নানা ধরনের চিন্তা করছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। সেজন্যই হয়তো কিছুটা হুঁশিয়ারির সুরে কথা বললেন এই খ্যাতনামা নায়ক। জায়েদ-নিপুনকে নিয়ে নির্বাচিত দুই প্যানেলের সদস্যদের মধ্যে যে মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে তা যেন শেষ হবার নয়। এই পদে শেষ হাসি যে হাসে সেটি দেখার অপেক্ষায় অনেকে।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, নির্বাচিত শিল্পী মধ্যে এখনো যারা শপথ নেননি, আমি আশা করবো তারা খুব দ্রুত শপথ নিতে আসবেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা (নির্বাচিত প্যানেল) এখনো কার্যনির্বাহী পরিষদের কোনো সভা করিনি, আমরা আশা করছি আগামী সাত দিনের মধ্যে সেটা অনুষ্ঠিত হবে। নবনির্বাচিতদের সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য দাওয়াত দেয়া হবে।

কেউ যদি সমিতিকে না জানিয়ে পরপর তিনটি সভায় উপস্থিত না থাকে তাহলে আপনা-আপনি তার কার্যকরী পরিষদের সদস্যপদ বাতিল হয়ে যাবে। তাই আমি আশা করব সকলে সতঃস্ফুর্তভাতে সভায় অংশগ্রহণ করবে।